একাদশ বিজ্ঞান, দাবা, চিত্রাঙ্কন সাংস্কৃতিক উৎসব - ২০১৯

শিক্ষার্থীদেরকে বিজ্ঞান মনস্ক, কুসংস্কারমুক্ত, আত্মসচেতন, সৃষ্টিশীল, মানবিক মানুষ রূপে গড়ে তোলার লক্ষ্যে গত ৯ই মার্চ, শনিবার সেন্ট গ্রেগরী হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজেপ্রাণ ফ্রুটো- সেন্ট গ্রেগরী হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ- একাদশ বিজ্ঞান, দাবা, চিত্রাঙ্কন সাংস্কৃতিক উৎসব- ২০১৯’- এর অলিম্পিয়াড কালচারাল প্রোগ্রামের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার গ্রেগরীয়ান তাকসীম . খান (ম্যানেজিং ডিরেক্টর, ওয়াসা) অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ব্রাদার প্রদীপ প্লাসিড গমেজ, সি.এস.সি. (অধ্যক্ষ, সেন্ট গ্রেগরী হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ) আরও উপস্থিত ছিলেন ব্রাদার তরেন পালমা, সি.এস.সি. (ভারপ্রাপ্ত উপাধ্যক্ষ, সেন্ট গ্রেগরী হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ), সুখন চন্দ্র দে (মডারেটর, গ্রেগরীয়ান সায়েন্স ক্লাব), হিমন এডওয়ার্ড গমেজ (মডারেটর, গ্রেগরীয়ান কালচারাল ক্লাব)

উক্ত দিনে কালচারাল প্রোগ্রাম চলার পাশাপাশি বিভিন্ন বিষয়ে অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত হয় তার মধ্যে ছিল গণিত, সাধারণ বিজ্ঞান, পদার্থ বিজ্ঞান, রসায়ন বিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান, বায়োকেমিস্ট্রি, এস্ট্রোনমি, আইটি হিসাব বিজ্ঞান প্রায় ৪০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ,৫০০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছিলো পরবর্তীতে ১৪ই মার্চ, বৃহস্পতিবার বিকাল :০০ টায়প্রাণ ফ্রুটো- সেন্ট গ্রেগরী হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজে একাদশ বিজ্ঞান, দাবা, চিত্রাঙ্কন সাংস্কৃতিক উৎসব- ২০১৯’- এর শুভ উদ্বোধন হয় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাণ গ্রুপের সম্মানিত ব্যবস্থাপনা পরিচালক সি.আই.পি. মি. ইলিয়াস মৃধাআরও উপস্থিত ছিলেন ব্রাদার প্রদীপ প্লাসিড গমেজ, সি.এস.সি. (অধ্যক্ষ, সেন্ট গ্রেগরী হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ), ব্রাদার তরেন পালমা, সি.এস.সি. (ভারপ্রাপ্ত উপাধ্যক্ষ, সেন্ট গ্রেগরী হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ), সুখন চন্দ্র দে (মডারেটর, গ্রেগরীয়ান সায়েন্স ক্লাব), অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন পতিতপাবন মণ্ডল (পাবন)

জাতীয় সঙ্গীতের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং গ্রেগরীয়ান সং (বিদ্যালয় সংগীত) এর মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয় প্রধান অতিথি তাঁর ভাষণেবিজ্ঞান সংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে আগামী প্রজন্মকে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাবার আহ্বান জানানঅনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন অত্র বিদ্যালয়ের মাননীয় অধ্যক্ষ, ব্রাদার প্রদীপ প্লাসিড গমেজ, সি.এস.সি. তিনি তাঁর ভাষণে ধরিত্রীমাতার যত্ন নেওয়ার আহ্বান জানান, যাতে আগামী প্রজন্ম একটি সুন্দর পরিবেশে জীবন ধারণ করতে পারে তিনি আরও বলেন, ‘এটা শুধু গ্রেগরীর উৎসব নয়, অংশগ্রহণকারী সকলের এর মাধ্যমে আমরা পরস্পরকে জানা, দেখা, বোঝার এবং শ্রদ্ধা করার সুযোগ পাইবিজ্ঞান আমাদেরকে দেহ, মন আত্মায় সুস্থ থাকতে সাহায্য করে বিজ্ঞান নতুন নতুন আবিষ্কারের পথ দেখায় বিজ্ঞানের আশীর্বাদে মানুষ পরিপূর্ণ এবং সমন্বিত সুনাগরিক হতে পারে বলে তিনি মত প্রদান করেন

উক্ত অনুষ্ঠান এর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় ৩০০ জন শিক্ষার্থী এবং হাতের লেখা প্রতিযোগিতায় ২৫০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে এছাড়া সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় ৪১টি ইভেন্টে ৪২৬ জন

Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail
Science Fair 2019
Science Fair 20...
Detail